ঢাকা, ১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, শুক্রবার
মেনু |||

ওজন কমাতে চান, খেয়ে দেখুন ঘি

ওজন কমাতে অনেক কিছুই করে থাকেন আপনি। এবার ওজন কমাতে খেয়ে দেখতে পারেন ঘি।

 

অনেকেই মনে করেন ঘি খেলেই বুঝি ওজন বেড়ে যায়! এ ধারণা সম্পূর্ণ ভুল। তবে একাধিক গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে– নির্দিষ্ট পরিমাণে ঘি সঠিক পদ্ধতি ও নিয়মিত খেলে ওজন কমবে।

 

একাধিক গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে যে, ঘিতে থাকা ‘মিডিয়াম চেন ফ্যাটি অ্যাসিড’ শরীরে জমে থাকা ‘ফ্যাট সেল’ গলাতে সাহায্য করে।

 

আসুন জেনে নিই ঘি খেলে যেসব উপকার পাবেন-

 

১. মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়াতে ঘি খুব ভালো কাজ করে। ঘিতে থাকা প্রচুর পরিমাণে অ্যাসেনশিয়াল ফ্যাট, যা মস্তিষ্কের কোষের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতেও ঘি অত্যন্ত কার্যকরী।

 

২. খালি পেটে ঘি খেতে পারলে শরীরে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিডের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। এই ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড রক্তে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টেরলকে নিয়ন্ত্রণ করে। ফলে হার্টের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়।

 

৩. ঘি-এ রয়েছে কে২ এবং সিএলএ নামক দুটি শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

 

৪. ঘিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলোকে শরীর থেকে বের করে দিয়ে ক্যান্সারের আশঙ্কাও কমিয়ে দেয়।

 

৫. খালি পেটে নিয়মিত নির্দিষ্ট পরিমাণে ঘি খেলে অস্থিসন্ধির সচলতা বাড়িয়ে তোলে এবং একই সঙ্গে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি মেটাতেও সাহায্য করে। ফলে হাড়ের যেকোনো রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়।

 

৫. প্রতিদিন খালি পেটে ঘি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে পারলে ত্বকের কোলাজেনের উৎপাদন বেড়ে যায়। ফলে ত্বক হয়ে ওঠে সুন্দর ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

 

৬. পুষ্টিবিদদের মতে, প্রতিদিন ২ চামচ ঘি খালি পেটে খেলে শরীরে রক্ত সঞ্চালনের মাত্রা বৃদ্ধি করে। এ ছাড়া ২-৩ চামচ ঘি ভাত বা রুটির সঙ্গে খেতে পারলে বাড়ে হজমশক্তি।

 

তথ্যসূত্র: জিনিউজ


ঢাকাওয়াচ/স

বাড়ি নং – ২৬৩, মালিবাগ, ঢাকা-১২১৭।
ফোন: ০১৭১১৭১০৪৬৬
ই-মেইল: dhakawatch24@gmail.com