ঢাকা, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার
মেনু |||

‘কারাগারের রোজনামচা’র ফরাসি সংস্করণের মোড়ক উন্মোচন

প্যারিসে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘কারাগারের রোজনামচা’ বইয়ের ফরাসি সংস্করণ ‘জার্নাল ডি প্রিজন’র মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

 

শুক্রবার প্যারিসের বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে। অনুষ্ঠানে দূতাবাসে সশরীরে উপস্থিত ছিলেন এ গ্রন্থের অনুবাদক অধ্যাপক ফিলিপ বেনোয়েত ও বইটির প্রকাশনী সংস্থার প্রতিনিধি বার্ট্রান্ড ফেভারেল।

 

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। তিনি নিউইয়র্ক থেকে ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে সংযুক্ত হন। এ আয়োজনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরাসি লেখক, দার্শনিক ও চলচ্চিত্রকার বার্নার্ড হেনরি লেভি। বিশেষ বক্তা হিসেবে ঢাকা থেকে অংশগ্রহণ করেন বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় কমিটির মুখ্য সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি মফিদুল হক।

 

শুভেচ্ছা বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে ফ্রান্সে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন জানান, বঙ্গবন্ধুর কারাগারের রোজনামচা বইটি বঙ্গবন্ধুর পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি জীবনের দিনলিপি।

 

তিনি বলেন, কারাবন্দি অবস্থায় বঙ্গবন্ধু নিজের পরিবার পরিজনের চেয়েও দেশ, দেশের মানুষের কথা চিন্তা করেছেন। কীভাবে পাকিস্তানি শাসক বাহিনীর অত্যাচার, নিপীড়নের বিরুদ্ধে তিনি সোচ্চার ছিলেন, দেশের মানুষকে মুক্তির আন্দোলনে দিক নির্দেশনা প্রদান করেছিলেন, তা বলা হয়েছে এই গ্রন্থে।

 

প্রধান অতিথি হিসেবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন বলেন, বঙ্গবন্ধু তার জীবনের ১৩টি বছর পাকিস্তানের কারাগারে কাটিয়েছেন। পরিবার-পরিজনকে ছেড়ে কারাগারে অন্তরীণ জীবনযাপন করেছেন। মানব জাতির অস্তিত্ব রক্ষায় বিশ্বময় শান্তি প্রতিষ্ঠা অনিবার্য। শান্তির যে বার্তা তিনি প্রচার করে গেছেন, সেটাই বাংলাদেশের পররাষ্ট্রনীতির মূলমন্ত্র।

 

ফরাসি লেখক, দার্শনিক ও চলচ্চিত্রকার বার্নার্ড হেনরি লেভি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বলেন, এ বইয়ে আমি বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠস্বর শুনতে পাই।

 

লেভি বলেন, এ গ্রন্থের মাধ্যমে জনমানুষের প্রতি বঙ্গবন্ধুর মমত্ববোধ আস্বাদন করতে পেরেছি। এটি স্থায়ীভাবে এ গ্রন্থে গ্রথিত হলো। বঙ্গবন্ধু তার বইতে যেভাবে ফরাসি বিপ্লবের কথা বলেছেন, ফরাসি জনগোষ্ঠীর সাম্য, মৈত্রী, স্বাধীনতাকে সমর্থন করেছেন, সেই একইভাবে ১৯৭১ সালের অক্টোবর মাসে ফরাসি দার্শনিক অঁন্দ্রে মার্লোও বাংলাদেশের স্বাধীকার আন্দোলনে তার সমর্থন প্রকাশ করেন।

 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে এবং বার্নার্ড হেনরি লেভি দূতাবাসে যৌথভাবে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। রাষ্ট্রদূত বইটি প্রকাশনায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। গ্রন্থটি আজ থেকে ফ্রান্সের বিভিন্ন বইয়ের দোকানে পাওয়া যাবে।


ঢাকাওয়াচ/স

বাড়ি নং – ২৬৩, মালিবাগ, ঢাকা-১২১৭।
ই-মেইল: dhakawatch24@gmail.com