ঢাকা, ৭ই জুলাই, ২০২০ ইং, মঙ্গলবার
মেনু |||

জেবুননাহার জনির পাঁচটি কবিতা

পরিমাপ

 

একা একা প্রকৃতি দেখার মাঝে আনন্দ আছে
নিজেকে চেনা যায় বহুরুপে
সুখের খোঁজ পেলে কি কেউ আর দু:খ পেতে চায়?
তোলপাড়ের তীব্রতায় জানি না-
কতটা সুখ পাওয়া যায়?
তবে সবই কি মানুষের জানা থাকে?
অজানাই তো বেশি থেকে যায়
শব্দ যতই সংক্ষিপ্ত হোক, তার গভীরতা কতখানি
তাই তো আসল…

 

 

 

মৃত্যু

 

দূর থেকেও ভালোবাসা যায়
কিন্তু দূরে যাবার প্রয়োজন কি খুব বেশী?
অন্যের কাছে বন্দী থাকলে মুক্ত হওয়া যায়
কিন্তু নিজের কাছে বন্দী হলে সহজে মুক্ত হওয়া যায় না
দীর্ঘ নীরবতায় মনোযোগি না হলে
হয়তো বিপ্লব হয়ে যেতে পারে
কেউ যখন বিখ্যাত হতে থাকে
তার ভেতরে তখন অহমিকা জেগে ওঠে নিজের অজান্তে
মানুষ একবার জন্ম নেয়
কিন্তু মরে বহুবার…

 

 

 

উচাটন

 

একা একা কফি পানে বিরহ জাগিয়ে
ঘুমে পুড়েছে আগুন

ডানে মোড়; বায়ে মোড়
তবু পড়েনা ঘুম

পড়া ভালো,
উপরে ওঠার সম্ভাবনা থাকে

স্মৃতির ভাঁজে বড় অসম জীবন
স্মারকলিপিতে উঁচু- নীচু স্রোতে
পিপাসায় কাতর জীবন

পিছুটান থাকবেই
তবু বেঁচে আছি বলতেই পথ চলা
জীবন বড় সুন্দর…

 

 

 

ক্লোজ চ্যাপ্টার

 

বহু আগেই ক্লোজ হওয়া চ্যাপ্টার
তবু মনে হলে আজও অবিরাম স্মৃতি ঝরে…

 

 

 

সুদ-আসল

 

সাত সাগর পাড়ি দিয়ে সৈকতে পড়ে থাকা
লোকের সংখ্যাই বেশী
জেনেশুনে-ও কেউ কেউ বিষপান করে
তাই, দুঃখের কাছেই হয়তো সবাই দুঃখ জমা রাখে
যেমন টাকা গচ্ছিত ব্যাংকে
টাকা জমা রাখা হয়
ঠিক তেমনই
কতজনের আপন গোপন দুঃখ যে
জমা রেখেছি নিজের কাছে
যা সুদে-আসলে দিন দিন
শুধু বেড়েই চলেছে…


ঢাকাওয়াচ/স

সম্পাদক : শাখাওয়াত সজীব
বাড়ি নং – ২৬৩, মালিবাগ, ঢাকা-১২১৭।
ফোন: ০১৭১১৭১০৪৬৬
ই-মেইল: dhakawatch24@gmail.com